1. admin@prothomaloonlinenews.com : admin :
সোমবার, ১০ মে ২০২১, ০১:১৪ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ
Welcome To Our Website...

মমতার শপথ কাল, পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনপরবর্তী সহিংসতায় নিহত ১৪

  • প্রকাশকাল: মঙ্গলবার, ৪ মে, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের তৃতীয়বারের মতো মুখ্যমন্ত্রী পদে আগামীকাল বুধবার (০৫ মে) শপথ নিতে যাচ্ছেন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রধান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার (০৩ মে) দলীয় কার্যালয়ে বৈঠকের পরে এই সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে। আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কালীঘাটে সংবাদ সম্মেলনের পরে তৃণমূল কার্যালয়ে পরিষদীয় দলের সঙ্গে আলোচনায় বসেন মমতা ব্যানার্জি। বৈঠকের পর সাংবাদিকদের সামনে এসে সিদ্ধান্ত জানান মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

তিনি জানান, মমতাই পরিষদীয় দলের নেত্রী নির্বাচিত হয়েছেন। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, আগামী ৫ মে শপথ নেবেন তিনি। তারপর ৬ ও ৭ মে বাকি বিধায়করা শপথ নেবেন। পার্থ আরও জানান, বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, বিধানসভার স্পিকার হবেন বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ই। স্পিকার নির্বাচনের দিন দায়িত্ব পালন করবেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়। কারা মন্ত্রী হবেন সে বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি; সেটা মমতা ঠিক করবেন।

সোমবার বিকেলে তৃণমূল ভবনে আসেন মমতা ব্যানার্জি। তিনি নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে মমতাকে বিধানসভার পরিষদীয় দলের দলনেত্রী নির্বাচিত করেন জয়ী বিধায়করা। এছাড়া বৈঠকে বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘প্রোটেম স্পিকার’ হিসেবে নির্বাচিত করা হয়। তাকেই বিধানসভার অধ্যক্ষ পদে বসানোর প্রস্তাব দেয়া হতে পারে বলে জানিয়েছেন তৃণমূল মহাসচিব। আগামী ৬ মে ‘প্রোটেম স্পিকার’ হিসেবে বিধায়কদের শপথবাক্য পাঠ করাবেন বিমান। আর তার হাতে সুব্রত মুখোপাধ্যায় দায়িত্ব তুলে দেবেন।




এবারের বিধানসভা নির্বাচনে ২৯২ আসনের মধ্যে ২১৩টি আসনে জিতেছে তৃণমূল। যদিও পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ আসন নন্দীগ্রামে জিততে পারেননি মমতা।

অপরদিকে, পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনপরবর্তী সংঘর্ষে ১৪ জন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে বিজেপি ও তৃণমূল—উভয় দলের সমর্থকই রয়েছেন। আর আগামীকাল বুধবারই বিজয়ী তৃণমূল দলের প্রধান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন। মমতা রাজ্যে শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন।

ভোট গণনার দিন গত রোববার দুপুর থেকে গতকাল সোমবার রাত পর্যন্ত রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে সংঘর্ষে ১৪ জন নিহত হয়েছেন। সংবাদমাধ্যম সূত্রে বলা হয়েছে, এই ১৪ জনের মধ্যে বিজেপির ৯ জন, তৃণমূলের ৪ জন, আইএসএফের ১ জন রয়েছেন।

গতকাল বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ কলকাতার দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, নির্বাচনপরবর্তী রাজনৈতিক সংঘর্ষে তাঁদের দলেরই আটজন মারা গেছেন। তাঁদের বহু সমর্থকের বাড়িঘর, দলীয় অফিস ভাঙচুর ও লুটপাট হয়েছে। বহু বিজেপি কর্মী আহত হয়েছেন। নির্বাচনপরবর্তী সংঘর্ষ এবং প্রাণহানি নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিবের কাছে রিপোর্ট তলব করেছে।




অন্যদিকে, রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি এবং নির্বাচনপরবর্তী সংঘর্ষে প্রাণহানির বিষয় নিয়ে রাজ্যের পুলিশের ডিজি এবং কলকাতার পুলিশ কমিশনারের কাছে রিপোর্ট চেয়েছেন।

বিজেপি কাল পশ্চিমবঙ্গজুড়ে ধিক্কার দিবসের ডাক দিয়েছে। আর এই দিবসের অবস্থান কর্মসূচিতে যোগ দেওয়ার জন্য আজ মঙ্গলবার কলকাতায় আসছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। তিনি দুদিন এখানে থাকবেন। সংঘর্ষে নিহত বিজেপির কর্মীদের বাড়িতে গিয়ে সমবেদনা জানাবেন।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে রাজ্যবাসীর প্রতি বিজয়ের শুভেচ্ছা জানিয়ে রাজ্যে শান্তি বজায় রাখার আবেদন জানিয়েছেন। যদিও মমতা এবারের নির্বাচনে তাঁর পরাজয়কে মেনে নিতে পারেননি। বলেছেন, ‘নন্দীগ্রামে ইভিএম মেশিন পাল্টে দেওয়া হয়েছে। আরও অনেক কিছু করেছে ওরা। এটা মানা যায় না। এ নিয়ে আমরা আদালতে যাব।’

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

© All rights reserved
ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি