কালের কন্ঠের সাংবাদিকের মাকে হত্যাচেষ্টা: আটক ১ – জয় বাংলার জয়
  1. admin@prothomaloonlinenews.com : admin :
শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ১১:৪১ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ

শিঘ্রই ম্প্রচারে আসছে রিয়ান টেলিভিশন। ২৪ ঘণ্টার পূর্ণাঙ্গ বাংলা টেলিভিশন "রিয়ান" টেলিভিশন। ‌'দেখিয়ে দাও বাংলাদেশ' স্লোগানকে সামনে রেখে সিঙ্গাপুর, লন্ডন, নিউইয়র্ক ও ঢাকা থেকে চারটি আলাদা বেজ-স্টেশনের মাধ্যমে পরিচালিত হবে চ্যানেলটি ♦ ঈদ মানে আনন্দ, তবে আমার জন্য না! যেমন আমার ঈদের আনন্দ কেড়ে নিয়েছে সে.....

ব্রেকিং নিউজ :
সাংবাদিক মামুন রশিদের বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার, থানায় অভিযোগ সম্পাদক পদে মনোনয়ন জমা দিলেন যুবলীগ চেয়ারম্যানের স্ত্রী এড.যূথী মনোনয়নপত্র বোর্ডেই জমা হয়নি, অভিযোগ অ্যাডভোকেট যুথির ঢাকা বারের নবনির্বাচিত কমিটিকে এড. নাহিদ সুলতানা যূথীর অভিনন্দন দেবীদ্বারে তানিশা ট্রাভেল এজেন্সি উদ্বোধন দেবীদ্বারে ভোটের আগের রাতেই নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থীর মৃত্যু সাংবাদিকদের ডাটাবেজ সরকারের একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ প্রকৃত কারণ বের করা জরুরি, সাংবাদিক হাবীবের মৃত্যু দুর্ঘটনা নাকি হত্যা? : সাংবাদিক রায়হান উল্লাহ সড়ক দুর্ঘটনায় সাংবাদিকের মৃত্যু, কুমিল্লায় শোকের মাতম কর্নেল ফারুক খান এমপিকে জসীম উদ্দিন চৌধুরীর শুভেচ্ছা

কালের কন্ঠের সাংবাদিকের মাকে হত্যাচেষ্টা: আটক ১

  • প্রকাশকাল: মঙ্গলবার, ১১ মে, ২০২১

জয় বাংলা অনলাইন ডেস্ক: কালের কণ্ঠ অনলাইন সেকশনের সহসম্পাদক কাওসার বকুলের মা খাদিজা বেগমের ওপর ভয়াবহ হামলার ঘটনায় এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার দিবাগত রাত ২টার দিকে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে মান্দা থানা পুলিশ। এর আগে এ ঘটনায় নওগাঁর মান্দা থানায় মামলা করেন কাওসার বকুলের বাবা রমজান আলী।

আটককৃত ইসব আলী মান্দার শ্রীরামপুর এলাকার বাসিন্দা। তার বাড়ি থেকে এক কিলোমিটার দূরের একটি জঙ্গল থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গ্রেপ্তারের পর ইসব আলীকে থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এর আগে গতকাল রবিবার মান্দা উপজেলার শ্রীরামপুর গ্রামে সাংবাদিক বকুলের বাড়িতেই হামলার ঘটনাটি ঘটে। আক্রান্ত খাদিজা বেগমের মাথায় হাসুয়া দিয়ে কোপ এবং লাঠি দিয়ে বারবার আঘাত করা হয়। গুরুতর আহত খাদিজা বেগম গতকাল রবিবার থেকে মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।



স্থানীয়রা জানান, গতকাল রবিবার ইফতারের পর কাওসার বকুলের মা খাদিজা বেগম বাড়ির উঠোনে একা ছিলেন। তার স্বামী রমজান আলী ধান কাটা উপলক্ষে ছিলেন মাঠে। ওই সময় বাড়ির উঠোনে উপস্থিত হয় একই গ্রামের ইছব আলীর স্ত্রী জোসনা বেগম এবং তার মেয়ে রিয়া। খাদিজা বেগমকে উঠোনে একা পেয়ে জোসনা বেগম তার মাথায় হাসুয়া দিয়ে অতর্কিতভাবে আঘাত করেন এবং রিয়া লাঠি দিয়ে আঘাত করে। মিনিটখানেকের মধ্যে ঘটনাটি ঘটিয়ে খাদিজা বেগম মারা গেছে ভেবে তার দ্রুত সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

জোসনা-রিয়াকে হাসুয়া-লাঠি হাতে কাওসার বকুলদের বাড়ির দিক থেকে যেতে দেখেন প্রতিবেশী জামাল হোসেন এবং আদরী বেগম। তারা খারাপ কিছু আশঙ্কা করে এগিয়ে গিয়ে দেখেন খাদিজা বেগম রক্তাক্ত এবং অজ্ঞান অবস্থায় উঠোনে পড়ে আছেন। পরে প্রতিবেশীরা এসে রক্তাক্ত খাদিজা বেগমকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।
মান্দা থানার ওসি শাহিনুর ইসলাম জানান, অভিযুক্ত তিনজনের একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকি আসামিরা পলাতক রয়েছে। তাদেরকে গ্রেপ্তার করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

আরও পড়ুন :  কেনো রোজিনাকে আটক রাখা হয়েছে তার ব্যাখ্যা চায় মানবাধিকার কমিশন

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ ক্যাটাগরীর আরও খবর




twitt feed

Linkedin profile



Copyright ©2021,joybanglarjoy.com, All Rights Reserved.

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি