“খিচুনিতে নয়, শিশু হামজার মৃত্যু হয় ফুফুর নির্মমতায়!” – জয় বাংলার জয়
  1. admin@prothomaloonlinenews.com : admin :
শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০২:০৪ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ

শিঘ্রই ম্প্রচারে আসছে রিয়ান টেলিভিশন। ২৪ ঘণ্টার পূর্ণাঙ্গ বাংলা টেলিভিশন "রিয়ান" টেলিভিশন। ‌'দেখিয়ে দাও বাংলাদেশ' স্লোগানকে সামনে রেখে সিঙ্গাপুর, লন্ডন, নিউইয়র্ক ও ঢাকা থেকে চারটি আলাদা বেজ-স্টেশনের মাধ্যমে পরিচালিত হবে চ্যানেলটি ♦ ঈদ মানে আনন্দ, তবে আমার জন্য না! যেমন আমার ঈদের আনন্দ কেড়ে নিয়েছে সে.....

ব্রেকিং নিউজ :
সম্পাদক পদে মনোনয়ন জমা দিলেন যুবলীগ চেয়ারম্যানের স্ত্রী এড.যূথী মনোনয়নপত্র বোর্ডেই জমা হয়নি, অভিযোগ অ্যাডভোকেট যুথির ঢাকা বারের নবনির্বাচিত কমিটিকে এড. নাহিদ সুলতানা যূথীর অভিনন্দন দেবীদ্বারে তানিশা ট্রাভেল এজেন্সি উদ্বোধন দেবীদ্বারে ভোটের আগের রাতেই নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থীর মৃত্যু সাংবাদিকদের ডাটাবেজ সরকারের একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ প্রকৃত কারণ বের করা জরুরি, সাংবাদিক হাবীবের মৃত্যু দুর্ঘটনা নাকি হত্যা? : সাংবাদিক রায়হান উল্লাহ সড়ক দুর্ঘটনায় সাংবাদিকের মৃত্যু, কুমিল্লায় শোকের মাতম কর্নেল ফারুক খান এমপিকে জসীম উদ্দিন চৌধুরীর শুভেচ্ছা হুইপ স্বপনের পিতার মৃত্যুতে ফারুক খান এমপির শোক

“খিচুনিতে নয়, শিশু হামজার মৃত্যু হয় ফুফুর নির্মমতায়!”

  • প্রকাশকাল: সোমবার, ৩১ মে, ২০২১

ভ্রাম্যমান প্রতিবেদক: ২০ মাস বয়সী আমির হামজা নামে এক শিশুর মৃত্যুর ৫ মাস পর জানা গেল খিচুঁনিতে নয়, মৃত্যু হয়েছে তার আপন ফুফুর নির্মমতায়। ঘটনাটি ঘটে গত বছরের ২৫ ডিসেম্বর সন্ধ্যায়, কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলার ফতেহাবাদ ইউনিয়নের সাইচাপাড়া গ্রামের সুলতান বাবুর্চির বাড়িতে। নিহত আমির হামজার (২০ মাস) ওই গ্রামের আল-আমিন (৩২) ও সালমা আক্তারের (২৬) একমাত্র পুত্র এবং হত্যাকারী আপন ফুফু স্বপ্না আক্তার (১৮) সুলতান বাবুর্চির মেয়ে।

ঘটনার ৫ মাস পর পুলিশি তদন্তে ওই হত্যাকান্ডের জড়িত থাকার অভিযোগে নিহত হামজার (ফুফু) স্বপ্না আক্তাকে(১৮) গত শনিবার দিবাগত রাতে গ্রেফতার করে। জিজ্ঞাসাবাদে স্বপ্না তার ভাইপোকে হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করলে রোববার (৩০ মে) কুমিল্লা ৪নং সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়।

পুলিশ ও নিহতের পরিবারের সদস্যরা জানায়, নিহত আমির হামজার বাবা হোটেলে চাকরি করেন এবং মাতা সালমা আক্তার (২৬) পারিবারিক অভাব অনটনের কারনে কুমিল্লা মহানগর এলাকার ইপিজেড-এ একটি পোষাক কারখানায় চাকুরি করেন। সেই কারনে তার শিশু সন্তান আমির হামজাকে শ্বশুর-শাশুড়ী ও ননদের কাছে দেখ-ভালের জন্য রেখে যান।

ঘটনার দিন সন্ধ্যায় রান্না করার সময় মায়ের অনুপস্থিতিতে হামজা কান্নাকাটি ও বিরক্ত করায় তার উপর ক্ষুব্ধ হয়ে তার আপন ফুফু স্বপ্না আক্তার (১৮) রান্নার কাজে ব্যবহৃত কাঠি দিয়ে স্বজোরে ঘারে আঘাত করলে অচেতন হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে শ^াসরোধে মৃত্যু নিশ্চিত করে। পরে তার খিঁচুনী রোগ দেখা দিয়েছে বলে স্থানীয়দের মধ্যে প্রচার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে মৃত্যু হয়েছে বলে জানায়। স্থানীয়দের পক্ষ থেকে অস্বভাবিক মৃত্যু হয়েছে বলে জানালে পুলিশ শিশুটির মরদেহ উদ্ধার পূর্বক ময়নাতদন্তের জন্য কুমেক হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করেন।

পরবর্তীতে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসার পর তার মৃত্যু খিচুঁনী রোগে নয়, ঘারে আঘাত ও শ্বাস রোধে তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানা যায়। পুলিশ ওই রিপোর্ট প্রাপ্তির পর ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদঘাটনে মাঠে নামে বলে পুলিশ জানায়। ওই ঘটনায় নিহতের মা সালমা আক্তার গত ২৮ মে অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে একটি মামলা করে। রোববার নিহতের ফুফু স্বপ্না আক্তারকে কুমিল্লা ৪নং জুডিশিয়ার ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে হাজির করলে সিনিয়র জুডিশিয়ার ম্যাজিষ্ট্রেট রোকেয়া বেগমের নিকট হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার দায় স্বীকার করে উল্লেখিত বক্তব্য প্রদান করেন। ম্যাজিষ্ট্রেট তার জবানবন্দী ১৬৪ ধারায় লিপিবদ্ধ করে তাকে জেল হাজতে প্রেরনের নির্দেশ দেন।

আরও পড়ুন :  জেবুন্নেসা বিরোধী সংবাদ ঠেকাতে স্বাস্থ্যের 'ভুলভাল' চিঠি তথ্য মন্ত্রণালয়ে

নিহত আমির হামজার নানা, পাশ্ববর্তী সুলতানপুর গ্রামের নায়েব আলী জানান, আমার মেয়ে ইপিজেডে চাকরি করে, সাথে একমাত্র মেয়ে ইরামনিকে (৫ মাস) সাথে রাখত, মেয়ের জামাই কুমিল্লা হোটেলে চাকরি করে। একমাত্র নাতী হামজাকে বাড়িতে তার দাদা-দাদী ও ফুফুর হেফাজতে রেখে যায়। তার ফুফুই তাকে হত্যা করল। হত্যার ১৫/১৬দিন পর হামজা ফুফু স্বপ্না আক্তারকে তরিঘড়ি করে পাশর্^বতী বুড়িচং উপজেলার কোরপাই গ্রামের সেলিম মিয়ার সাথে বিয়ে দেন।

দেবীদ্বার থানার ওসি (তদন্ত) ছমি উদ্দিন জানান, ওই ঘটনায় প্রথমে অপমৃত্যু মামলা হলেও ময়নাতদন্ত রিপোর্ট দেখে হামজার স্বাভাবিক মৃত্যু নয়, হত্যাকান্ড বলে নিশ্চিত হই। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে নিহতের ফুফুকে গ্রেফতার পূর্বক কোর্ট হাজতে প্রেরন করি। ওই হত্যাকান্ডের সাথে আর কেউ জড়িত আছে কিনা, তা জানার চেষ্টা চলছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ ক্যাটাগরীর আরও খবর




twitt feed

Linkedin profile



Copyright ©2021,joybanglarjoy.com, All Rights Reserved.

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি