সাংবাদিকতা ছেড়ে দিয়ে ভাতের হোটেল দেবো তারপরও আপোস করবো না: বানী ইয়াসমিন হাসি – জয় বাংলার জয়
  1. admin@prothomaloonlinenews.com : admin :
বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৯:০২ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ

শিঘ্রই ম্প্রচারে আসছে রিয়ান টেলিভিশন। ২৪ ঘণ্টার পূর্ণাঙ্গ বাংলা টেলিভিশন "রিয়ান" টেলিভিশন। ‌'দেখিয়ে দাও বাংলাদেশ' স্লোগানকে সামনে রেখে সিঙ্গাপুর, লন্ডন, নিউইয়র্ক ও ঢাকা থেকে চারটি আলাদা বেজ-স্টেশনের মাধ্যমে পরিচালিত হবে চ্যানেলটি ♦ ঈদ মানে আনন্দ, তবে আমার জন্য না! যেমন আমার ঈদের আনন্দ কেড়ে নিয়েছে সে.....

ব্রেকিং নিউজ :
সম্পাদক পদে মনোনয়ন জমা দিলেন যুবলীগ চেয়ারম্যানের স্ত্রী এড.যূথী মনোনয়নপত্র বোর্ডেই জমা হয়নি, অভিযোগ অ্যাডভোকেট যুথির ঢাকা বারের নবনির্বাচিত কমিটিকে এড. নাহিদ সুলতানা যূথীর অভিনন্দন দেবীদ্বারে তানিশা ট্রাভেল এজেন্সি উদ্বোধন দেবীদ্বারে ভোটের আগের রাতেই নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থীর মৃত্যু সাংবাদিকদের ডাটাবেজ সরকারের একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ প্রকৃত কারণ বের করা জরুরি, সাংবাদিক হাবীবের মৃত্যু দুর্ঘটনা নাকি হত্যা? : সাংবাদিক রায়হান উল্লাহ সড়ক দুর্ঘটনায় সাংবাদিকের মৃত্যু, কুমিল্লায় শোকের মাতম কর্নেল ফারুক খান এমপিকে জসীম উদ্দিন চৌধুরীর শুভেচ্ছা হুইপ স্বপনের পিতার মৃত্যুতে ফারুক খান এমপির শোক

সাংবাদিকতা ছেড়ে দিয়ে ভাতের হোটেল দেবো তারপরও আপোস করবো না: বানী ইয়াসমিন হাসি

  • প্রকাশকাল: বুধবার, ২৮ জুলাই, ২০২১

নাজনীন সুলতান: জার্নালিজম একটা থ্যাংকলেস জব। এটা মাথায় রেখেই এই পেশায় এসেছি। আমি খুব শখ করে জার্নালিজম পড়েছিলাম। আমার চেয়ে অবশ্য আমার মায়ের আগ্রহটাই বেশি ছিল। ভার্সিটিতে ভর্তির সময় চয়েজ ফরম পূরণে ১/২/৩- তিনটাতেই আমি গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা লিখেছিলাম। ত্রপা ম্যাম খুব অবাক হয়েছিলেন আমার ফরম টা হাতে নিয়ে। উনি আমাকে জিজ্ঞেস করেছিলেন- এ্যাই মেয়ে কি করেছো এটা ? যদি জার্নালিজম না পাও তাহলে কি করবে ? বাড়ি যেয়ে পাশের গ্রামের কলেজে ভর্তি হবো -এটাই ছিল আমার উত্তর। (কারণ আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের খ ইউনিট ছাড়া আর কোথাও ফরম তুলি নি)। আমার তখনকার ওজন ছিল ৩৯ কেজি। এমন ছোটখাট কারো মুখ থেকে এমন কথা শুনে উনি বেশ অবাক হয়েছিলেন।

অবশেষে আমি জার্নালিজমেই ভর্তি হলাম। আমি মিছিলের ফাঁকে ফাঁকে ক্লাস করতাম। পড়াশোনা শেষ করে বিবার্তা শুরুর আগে আমি অনলাইন নিয়ে প্রচুর পড়েছি, খোঁজখবর নিয়েছি। রীতিমত গবেষণাও করেছি।

বিবার্তা খুব ছোট একটা নিউজপোর্টাল। কিন্তু আমি দায়িত্ব নিয়ে বলতে পারি- বিবার্তা কখনো গল্প লেখে না। উপযুক্ত তথ্য প্রমাণ ছাড়া একটা শব্দও পাবলিশড হয় না এখানে। হাজারটা দিন পজিটিভ নিউজ করার পরও কেউ কোনদিন একটা থ্যাংক ইউ বলেন না। কিন্তু পান থেকে চুন খসলেই তদবিরের যন্ত্রণায় জীবন অতিষ্ঠ করে দেন।

আমার জন্ম ৭ মাসের ও আগে। আমার বেঁচে থাকার কথা ছিল না। মাকে বাঁচানোর জন্য আমাকে বের করা হয়েছিলো। আমি বাইচান্স বেঁচে গেছি। গত নভেম্বরে আমি যখন কোভিভ পজিটিভ হই; শরীর বেশ খারাপ হয়ে যায়। ডায়বেটিক এবং এ্যাজমার কারণে ভীষণ দূর্বল হয়ে যাই। হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছিলো। হাসপাতাল থেকে আমার বাসায় ফেরার কথা ছিল না। দুই দুইটা বোনাস লাইফ নিয়ে বেঁচে আছি আমি। আমার আসলে ভয়ডর নেই; কোন পিছুটান নেই। জীবনের প্রতি কোন মায়া নেই। আমার হারানোর কিছু নেই।

আরও পড়ুন :  এবার বাস চালালেন কচিপাতা ম্যাগাজিনের সম্পাদক আলেয়া বেগম আলো

চাপ, তদবির, ভয়, অনুরোধ, সম্পর্ক, অনুরাগ,প্রেম – নিউজের বেলায় সব অকার্যকর। আমি যখন সম্পাদকের চেয়ারটাতে বসি আমার সামনে তখন পাঠকের মুখ ছাড়া আর কোন মুখ ভাসে না। প্রয়োজনে সাংবাদিকতা ছেড়ে দিয়ে ভাতের হোটেল দেবো তারপরও আপোস করবো না।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ ক্যাটাগরীর আরও খবর




twitt feed

Linkedin profile



Copyright ©2021,joybanglarjoy.com, All Rights Reserved.

ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি